মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

আনসার ও ভিডিপির দায়িত্ব

আনসার ও ভিডিপি'র দায়িত্ব ও কর্তব্য

আনসার ও ভিডিপি'র দায়িত্বঃ-

১। আনসার ও ভিডিপি'র প্রধান দায়িত্ব হলো-

(ক) দেশের আর্থ-সামাজিক ব্যবস্থা উন্নয়নের লক্ষ্যে জনকল্যাণমূলক কাজে অংশ গ্রহণ করা।

(খ) আইন-শৃঙ্খলা ও জননিরাপত্তামূলক কাজে সহায়তা প্রদান করা।

(গ) সরকার কর্তৃক, সময় সময় নির্ধারিত যেকোন দায়িত্ব পালন করা।

২। সরকার কর্তৃক প্রণীত নীতিমালা এবং তৎকর্তৃক, সময় সময়, প্রদত্ত নির্দেশ ও আরোপিত শর্ত সাপেক্ষে আনসার ও ভিডিপি'র সদস্য/সদস্যাগণ অস্ত্র গোলাবারুদ বহন ও ব্যবহার করতে পারবে।

### আদেশ পালনে বাধ্যবাধকতাঃ-

আনসার ও ভিডিপি'র সদস্য/সদস্যাগণ যথাযথ কর্তৃপক্ষ কর্তৃক তাদেরকে প্রদত্ত আইনানুগ আদেশ পালনে বাধ্য থাকবে।

### আনসার ও ভিডিপি'র সংগঠনঃ-

বাংলাদেশের প্রত্যেক গ্রামে গ্রামে আনসার ও ভিডিপি'র ২টি (দল) প্লাটুন রয়েছে। এর ১টি পুরুষদের দল এবং অন্যটি মহিলাদের দল। প্রত্যেক দলে রয়েছে ৩২ জন করে পুরুষ বা মহিলা। তাদের মধ্যে ১ জন দলনেতা/দলনেত্রী, বাকী ৩০ জন সদস্য/সদস্যা। এই ৩০ জন আবার ৩টি সেকশন বা শাখা দলে বিভক্ত থাকে।

দলের সবার নাম দলনেতা/দলনেত্রীর নিকট লিখিত থাকবে। তাদের তালিকা ইউনিয়ন দলনেতা/দলনেত্রীর নিকট এবং থানা আনসার ভিডিপি অফিসে থাকবে।

### আনসার ও ভিডিপি'র সদস্য-সদস্যাদের কাজঃ-

আনসার ও ভিডিপি'র সদস্য-সদস্যাদের কাজ নিম্নরূপঃ-

১। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাঃ-

(ক) গ্রামের খারাপ লোকদের চরিত্র সংশোধন করা এবং তাদের উপর নজর রাখা।

(খ) চুরি, ডাকাতি, খুন, বে-আইনী অস্ত্র ব্যবহার, চোরাচালান, খারাপ কাজ এসব দমন করা।

(গ) সরকারি মালামাল দেখাশুনা করা।

(ঘ) প্রয়োজনে গ্রাম পাহারা দেয়া।

(ঙ) আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় পুলিশকে, চোরাচালান দমনে বিজিবিকে সাহায্য করা খবরাখবর দেয়া।

(চ) গ্রামের ঝগড়া বিবাদ মীমাংসা করা এবং শান্তি রক্ষা করা।

২। নিজের ও পরিবারের উন্নয়নঃ-

(ক) পরিবারের সব লোক বেশী বেশী কাজ করা (দিনে ১২ থেকে ১৬ ঘন্টা)।

(খ) জমিতে বেশী ফসল ফলানো এবং সারা বছর জমিতে ও বাড়ীতে শাক-সবজি ও ফলমূল আবাদ করা।

(গ) গরু, ছাগল, ভেড়া, কবুতর ও হাঁস-মুরগী পালন এবং মাছ চাষ করা।

(ঘ) বাঁশ, বেত, মাটি, কাগজ এসবের সামগ্রী তৈরী, সেলাই ও অন্যান্য হাতের কাজ এবং ছোট ব্যবসা করে অর্থ উপার্জন করা।

(ঙ) বেশী আয় করা এবং খরচ কম করে অর্থ জমানো।

(চ) শুনে এবং বই পড়ে শিক্ষা লাভ করা।

(ছ) পরিবার ছোট রাখা। ২ জনের বেশী সন্তান না হয় তার ব্যবস্থা নেয়া।

৩। গ্রাম উন্নয়নঃ-

(ক) গ্রামবাসীদের একত্রিত করে তাদের মধ্যে ভাল সম্পর্ক তৈরী করা, গ্রামের শান্তি রক্ষা করা এবং উন্নয়নের জন্য একে অপরকে সাহায্য করা।

(খ) গ্রামকে নিরক্ষর মুক্ত করা। প্রয়োজনে গণশিক্ষার বিদ্যালয় স্থাপন ও পরিচালনা করা।

(গ) গ্রামের সবার জমিতে বেশী ফসল আবাদের জন্য পানি সেচ, ভালভাবে চাষ, সার ব্যবহার, ভাল জাতের বীজ ব্যবহার এসবের ব্যবস্থা করা।

(ঘ) গ্রামে বেশী করে গাছ-পালা লাগানো।

(ঙ) গ্রামে রাস্তাঘাট, পুল, সেতু তৈরী এবং মেরামত।

(চ) সবার বাড়ীতে স্বাস্থ্যসম্মত শৌচাগারের ব্যবস্থা।

(ছ) সব পরিবারের সন্তান সংখ্যা- ২ এ সীমিত রাখা।

(জ) বিপদ-আপদে ও অসুস্থতায় একে অন্যকে সাহায্য করা।

৪। অন্যান্যঃ-

(ক) প্রাকৃতিক দুর্যোগ, ঘুর্ণিঝড়, জলোচ্ছ্বাস এসব সময়ে সেবা, ত্রাণ ও পুর্নবাসন কাজে আত্ম নিয়োগ করা।

(খ) স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব রক্ষার জরুরী প্রয়োজনে সেনাবাহিনীর সাথে কাজ করা।

(গ) জাতীয় স্বনির্ভরতা অর্জনে দেশপ্রেমিক নাগরিক হিসাবে ভুমিকা পালন করা।

### ইউনিয়ন দলনেতা-দলনেত্রীর দায়িত্বঃ- বাধ্যবাধকতামূলক কাজ-

১। মাসে কমপক্ষে ২জন পুরুষ বা মহিলাকে পরিবার পরিকল্পনার স্থায়ী পদ্ধতি এবং ৫জনকে অস্থায়ী পদ্ধতি গ্রহণ করানো।

২। মাসে কমপক্ষে ৫ জন পুরুষ বা মহিলাকে নিরক্ষরমুক্ত করা এবং উন্নয়নমূখী বিষয়ে জ্ঞান দান।

৩। কমপক্ষে প্রতি ৩ মাসে একবার প্রতিটি প্লাটুন পরিদর্শন এবং সকল সদস্য/সদস্যার সাথে আলোচনা করে কাজের উৎসাহ উদ্দীপনা দান।

৪। সদস্য/সদস্যাদের ভাল কাজের খবর সঙ্গে সঙ্গে লিখিতভাবে থানা আনসার ভিডিপি অফিসারকে জানানো।

৫। নিজের মাসিক কাজের বিবরণ একটি খাতায় লিখে রাখা এবং তা থানা আনসার ভিডিপি অফিসার ও প্রশিক্ষককে দেখিয়ে স্বাক্ষর গ্রহণ।

### সাধারণ দায়িত্বঃ- উদ্বুদ্ধকরণ ও সংগঠন-

১। গ্রামবাসীদের আনসার ও ভিডিপি দল গঠনে উদ্বুদ্ধ করা।

২। ইউনিয়নের প্রত্যেক গ্রামে একটি পুরুষ ও একটি মহিলা সক্রিয় প্লাটুন গঠণ করে প্লাটুন তালিকা তৈরী করা (দলনেতা পুরুষ প্লাটুন ও দলনেত্রী মহিলা প্লাটুন)।

৩। ইউনিয়ন পর্যায়ে একটি ভিডিপি ক্লাব ও একটি ভিডিপি সমিতি গঠণ (দলনেতা ক্লাব ও দলনেত্রী সমিতি)।

৪। প্রত্যেক গ্রামে একটি ভিডিপি ক্লাব ও একটি ভিডিপি সমিতি গঠণে সদস্য/সদস্যাদের উদ্বুদ্ধ করা।

৫। সদস্য/সদস্যাদের আগ্রহ মাফিক উন্নয়নমূলক পেশা গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করা, জ্ঞান দান এবং প্রয়োজনীয় সহায়তা করা।

৬। প্রত্যেক মাসে একবার গ্রাম দলনেতা/দলনেত্রীদের সাথে যোগাযোগ করা, তাদের কাজ দেখাশুনা এবং উৎসাহ ও পরামর্শ দেয়া।

৭। যেকোন জরুরী অবস্থায় সদস্য/সদস্যাদের সংগঠিত করা এ নেতৃত্ব দান।

### আইন-শৃঙ্খলাঃ-

১। গ্রামের আইন শৃঙ্খলা রক্ষায় সংশ্লিষ্ট বাহিনীকে সহায়তা করা।

২। চুরি, ডাকাতি, রাহাজানি, খুন, নাশকতামূলক কাজ, বে-আইনী অস্ত্র রাখা, গুপ্তচরবৃত্তি, দুর্নীতি ও চোরাচালান দমনে ভূমিকা রাখা।

৩। প্রয়োজনবোধে গ্রামে পাহারার ব্যবস্থা করা।

৪। গুরুত্বপূর্ণ স্থান, সরকারি সম্পদ, পুল, রেল সড়ক, টেলিফোন ও বৈদ্যুতিক সরঞ্জামাদি পাহারা ও দেখাশুনার ব্যবস্থা করা।

৫। মাসে ২ বার ইউনিয়নের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সম্পর্কে থানা আনসার ও ভিডিপি অফিসারকে অবহিত করা এবং তাকে সহ একবার থানার পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার সাথে এ বিষয়ে আলোচনা বৈঠকে মিলিত হওয়া (কেবলমাত্র দলনেতারা)। 

### উন্নয়নমূলকঃ-

১। সদস্য/সদস্যাদের উন্নয়নমূখী কাজে উদ্বুদ্ধ করা ও আলোচনার মাধ্যমে জ্ঞান দেয়া।

২। কুটির শিল্প স্থাপন এবং অন্যান্য আয়মূলক কাজে সদস্য/সদস্যাদের পথ দেখানো।

৩। ক্লাব সমিতির মাধ্যমে তাদের উন্নতির সুযোগ সৃষ্টি করা।

৪। সদস্য/সদস্যাদের কৃষি উৎপাদন বাড়ানো, হাঁস-মুরগী ও গরু-ছাগল পালন, শাক-সবজি ও ফলমূল আবাদ, মাছ চাষ এসব কাজে পরামর্শ ও সহায়তা দান করা।

৫। পরিবার পরিকল্পনা গ্রহণে সদস্য/সদস্যাদের উদ্বুদ্ধ করা।

৬। সদস্য/সদস্যাদের জন্য গণশিক্ষার ব্যবস্থা করা।

৭। আদর্শ ভিডিপি গ্রাম, উন্নয়ন আন্দোলন গ্রাম ও আনসার ভিডিপি উন্নয়ন গ্রাম গঠণ।

৮। নিজেকে এবং নিজের পরিবারকে স্বনির্ভর করা।

৯। সদস্য/সদস্যাদের মধ্যে আয় বাড়িয়ে এবং খরচ কমিয়ে সঞ্চয়ের আভাস সৃষ্টি।

১০। সদস্য/সদস্যাদের উন্নয়নমূলক ও পেশাভিত্তিক প্রশিক্ষণ গ্রহণের ব্যবস্থা করে দেয়া।

### কল্যাণমূলকঃ-

১। গ্রামের রাস্তাঘাট, পুল, সেতু ইত্যাদি নির্মাণ ও মেরামতের ব্যবস্থা করা।

২। গ্রামের পুকুর, ডোবা, খাল এসব খনন ও সেচের ব্যবস্থা করা।

৩। স্কুল, মক্তব, বিদ্যালয় স্থাপন করা বা স্থাপনে সহায়তা করা।

৪। সদস্য/সদস্যাদের জন্য চিত্ত বিনোদন, খেলাধূলা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও আলোচনা সভার আয়োজন করা।

৫। মহামারী, ঘূর্ণিঝড়, বন্যা ও অন্যান্য প্রাকৃতিক দুর্যোগকালে গ্রামবাসীদের সাহায্য করা।

৬। সদস্য/সদস্যাদের জন্য সরকার থেকে দেয়া সাহায্য ও পুরষ্কার প্রাপ্তিতে সহায়তা করা।

### বিবিধঃ-

১। সদস্য/সদস্যাদের অসুবিধাদি দূর করার ব্যবস্থা করা।

২। ইউনিয়নের সদস্য/সদস্যাদের মাসিক কাজের বিবরণ থানা আনসার ভিডিপি অফিসারের নিকট দাখিল করা।

৩। মাসে কমপক্ষে দুই বার থানা আনসার ভিডিপি অফিসারের কার্যালয়ে সভায় উপস্থিত হয়ে তার সাথে আলোচনা ও নিয়মিত যোগাযোগ রাখা।

৪। প্রত্যেক গ্রামে নিয়মিত প্রতিরোধ পত্রিকা পৌঁছানো।

৫। প্রশিক্ষণের জন্য উৎসাহ, আগ্রহ ও যোগ্যতার ভিত্তিতে সঠিক সদস্য-সদস্যা বাছাই।

৬। নির্দেশমত সদস্য-সদস্যাদের নিয়ে সমাবেশে যোগদান।

### গ্রাম দলনেতা-দলনেত্রীর দায়িত্ব কর্তব্যঃ-

১। গ্রামে ৩২ জন পুরুষ/মহিলা নিয়ে দল গঠণ করা।

২। দলের সবার তালিকা তৈরী করা। তালিকার ১ কপি নিজের কাছে রাখা এবং ১ কপি ইউনিয়ন দলনেতা-দলনেত্রীর নিকট প্রদান করা।

৩। নিজে দলনেতা/দলনেত্রীর মৌলিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করা। কমপক্ষে একটি পেশায় প্রশিক্ষণ নিয়ে নিজের কাজের সংস্থান করা এবং স্বনির্ভর হওয়া।

৪। সদস্য-সদস্যাদের নিয়মিত দলের কাজ কর্ম বিষয়ে শিক্ষা দেয়া।

৫। সদস্য-সদস্যাদের স্বনির্ভর করার জন্য সব ধরণের উন্নয়নে উৎসাহ ও প্রশিক্ষণ দেয়া এবং সহায়তা করা।

৬। নিজে পরিবার পরিকল্পনার পদ্ধতি গ্রহণ করে এবং সদস্য-সদস্যাদের উৎসাহ দিয়ে সন্তান সংখ্যা সর্বোচ্চ ২ জনে সীমিত রাখা।

৭। নিজে লেখাপড়া শেখা এবং সদস্য-সদস্যাদের শিক্ষিত করা।

৮। নিজের এবং সদস্য-সদস্যাদের সন্তানদের নিয়মিত স্কুলে পাঠানো।

৯। নিজের এবং অন্যসব পরিবারে স্বাস্থ্য সম্মত শৌচাগার ব্যবহারের ব্যবস্থা করা।

১০। সরকার সদস্য-সদস্যাদের উপর আইন শৃঙ্খলা রক্ষা এবং উন্নয়ন মূলক কাজের যে সব দায়িত্ব দিয়েছে তা পালন করার জন্য তাদের উৎসাহ দেয়া এবং সাহায্য করা।

১১। নিজের এবং সদস্য-সদস্যাদের সব ভাল কাজের খবর ইউনিয়ন দলনেতা-দলনেত্রীকে জানানো এবং সবার জন্য পুরষ্কারের ব্যবস্থা করা।

১২। সদস্য-সদস্যাদের নিয়ে ক্লাব/সমিতি গঠণ করা।

১৩। সদস্য-সদস্যাদের সমস্যায়, বিপদ-আপদে ও অসুস্থতায় সাহায্য করা।